গুনাহ মাফের উপায়

New -30% গুনাহ মাফের উপায়
গুনাহ মাফের উপায়-
‘গুনাহ’ প্রায় প্রতিটি মানুষের জীবনের সাথে সম্পর্কিত একটি অবিচ্ছেদ্য শব্দ। জীবনে চলার পথে উঠতে-বসতে-চলতে-ফিরতে আমরা প্রায়ই ‘গুনাহ’ করে থাকি এবং সময় বিশেষে আফসোস করি। অনেকে আবার তাওবার পথ না জানার কারণে শেষ জীবনটাকে হতাশায় নিঃশেষ করে দেই। যাদের জীবনটা পাপ করতে করতে পাথর প্রায় হয়ে গেছে তাদের জন্য “গুনাহ মাফের উপায়” গ্রন্থটি হতে পারে একপসলা আশার আলো এবং কলূষিত জীবন থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার আলোকমশাল।

প্রথম অধ্যায়:
প্রথম অধ্যায়টিকে লেখক “গুনাহ পরিচিতি” শিরোনামে উল্লেখ করেছেন। যার মধ্যে গুনাহ কাকে বলে, এর প্রকারভেদ, মানবজীবনে গুনাহ সমূহের কু-প্রভাব গুলো খুব সাবলিল ভাষায় সংক্ষিপ্তাকারে আলোচনা করেছেন। উক্ত অধ্যায়ে লেখক কুরআন এবং গ্রহণযোগ্য হাদীসের আলোকে কবিরা গুনাহর একটি দীর্ঘ তালিকা দিয়েছেন যা কবিরা গুনাহ চিনতে ও তা থেকে দূরে থাকতে পাঠককে সাহায্য করবে।

দ্বিতীয় অধ্যায়:
এ অধ্যায়টি বইয়ের সবচেয়ে বড় এবং গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। এখানে লেখক প্রথমে কোন ধরনের গুনাহ মাফ হয় তার আলোকপাত করেছেন। তারপর তিনি গুনাহ মাফের উপায় গুলোকে ২টি ভাগে বিভক্ত করেছেন যা হল ‘উপলক্ষযুক্ত উপায়’ এবং ‘উপলক্ষহীন উপায়’ নামে। বইয়ের এই অংশটুকু পড়লে বুঝা যায় আল্লাহ রব্বুল আলামীন তার বান্দার উপর কতটা দয়াশীল হলে বিভিন্ন উপলক্ষকে কেন্দ্র করে এবং উপলক্ষ ছাড়াও অতীত জীবনে সংঘটিত ছোটবড় পাপগুলো ক্ষমা করে থাকেন।

তারপর তিনি উক্ত অধ্যায়ে গুনাহ মাফের উপায় সমূহ বিস্তরভাবে আলোচনা করেছেন, যেখানে লেখক আমাদের গুনাহ মাফের মোট ১৮টি অসাধারণ পদ্ধতির সন্ধান দিয়েছেন। আর এই ১৮টি পদ্ধতির মধ্যে ‘তাওবা’ শিরোনামের পরিচ্ছেদটি আমার পড়া বইয়ের শ্রেষ্ঠ অংশ। যা পড়ার পর নিজের আবেগ সংবরণ করতে পারিনি। এখানে তাওবার পরিচিতি, পদ্ধতি, প্রয়োজনীয়তা ও প্রতিদান ইত্যাদি আলোচনার পর লেখক খাঁটি তওবার কিছু ঐতিহাসিক ঘটনা উল্লেখ করেছেন। যে ঘটনাগুলো যতবার-ই পড়ি ততবার-ই গা শিহরিত হয়ে উঠে। আল্লাহ রব্বুল আলামীনকে মানুষ ভয় করে একথা সত্য তবে একশো লোকের খুনির মত আল্লাহর ভয় খুব কম মানুষ-ই করে।প্রতিপালকের কাছে মানুষ তাওবা করে, করছে এবং ভবিষ্যতেও করবে একথা সত্য তবে গামিদী গোত্রের মহিলার মত তাওবা খুব কম মানুষ-ই করতে পারে। তাবুক যুদ্ধে অংশ গ্রহণ না করা সাহাবীগণ কী এমন তওবা করলেন যা আল্লাহ রব্বুল আলামীন কবুল-ই শুধু করলেন না তদুপরি কুরআনেও তাদের দৃষ্টান্ত উল্লেখ করে দিলেন! এই সমস্ত ঘটনাগুলো পাপ পঙ্কিলতায় পরিপূর্ণ আমাদের জীবনকে খুব বেশী আশাবাদী করে একথা অনস্বিকার্য। অতঃপর লেখক গুনাহ মাফের আমলগুলোর স্তরবিন্যাস করেছেন, যেখানে ছোট-বড় মিলিয়ে প্রায় ৭১টি উপায় উল্লেখ করেছেন যা প্রত্যেকটি মুসলিমের জেনে রাখা আবশ্যক।

তৃতীয় অধ্যায়: এ অধ্যায়টিতে লেখক কুরআন এবং বিশুদ্ধ হাদীসে বর্ণিত দু’আ গুলো উল্লেখ করেছেন যা গুনাহমাফের সাথে সম্পৃক্ত। উক্ত দু’ আ গুলো প্রত্যেক মুসলিমের মুখস্থ রাখা জরূরী বলে আমি মনে করি।

চতুর্থ অধ্যায়: সর্বশেষ অধ্যায়টিতে লেখক উপসংহার, গ্রন্থপঞ্জি, পাঠকদের জন্য কিছু পাতা ব্ল্যাঙ্ক রেখে মহামূল্যবান এই গ্রন্থটির সমাপ্তি টেনেছেন। কুরআন এবং গ্রহণযোগ্য হাদীসের আলোকে প্রণীত গুনাহ মাফের উপায় শীর্ষক গ্রন্থ বাংলা ভাষায় খুবই বিরল।তাই নিজে পড়ে ফেলুন এবং অপর বন্ধুকে গ্রন্থটি গিফট করে গুনাহ মাফের উপায় গুলো জানিয়ে দিন এবং বাতলিয়ে দিন প্রতিপালকের দয়ার সন্ধান।
(রিভিউঃ Rabi Ullah)

লেখক: শাহাদাৎ হুসাইন খান ফয়সাল
প্রকাশনী : ইয়াকিন পাবলিকেশন
পৃষ্ঠা -২২০

Write a review

Note: HTML is not translated!
    Bad           Good

0 Product(s) Sold
  • ৳322.00
  • ৳225.00
  • Ex Tax: ৳225.00

Tags: গুনাহ মাফের উপায়